• শনিবার ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম


    আবারও মুখরিত জবি ক্যাম্পাস

    মাহির আমির মিলন (জবি) | ০৫ জুন ২০২১ | ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ

    আবারও মুখরিত জবি ক্যাম্পাস

    শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী সাইদুল ইসলাম সাঈদ শান্ত চত্বরে বন্ধুদের সাথে আড্ডা কালে বলেন, হতাশার গ্লানি কাটিয়ে বুকভরা আশা নিয়ে জীবনকে নব রূপে সাজাতে জবিতে ফিরেছে শিক্ষার্থীরা। আমরা চাই প্রত্যাশার বাস্তবায়নে নিজেকে সাফল্যমণ্ডিত করতে। বাড়িতে থাকতে আর ভালো লাগছে না আমাদের। আবার ফিরতে চাই শ্রেণিকক্ষে।
    ঈদ পরবর্তী সময়ে এসে জবি ক্যাম্পাস তাঁর সন্তানদের পাদচারণায় আজ মুখরিত। এই যেন, নতুন প্রাণের সঞ্চার ও নব যৌবনের উন্মাদনা। সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়াতে ক্যাম্পাসজুড়েই সহপাঠী, সিনিয়র-জুনিয়র, রাজনৈতিক ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর বিক্ষিপ্ত দলীয় আড্ডা যেন জগন্নাথের দীর্ঘকালীন একাকিত্বকে ভুলিয়ে দিচ্ছে আজ তাঁর।  জোনাকিপোকার মতো করে জ্বলছে ক্যাম্পাসের প্রাণগুলো।
    গত শুক্রবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি)’তে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কথা ভেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন উন্মুক্ত লাইব্রেরি খুলে দেন। তারপর থেকে সাধারণ শিক্ষার্থীরা আসতে নিয়মিত পড়াশোনার জন্য। বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে আমাদের এই উদ্যোগ।
     ৪ঠা জুন (শুক্রবার) থাকায় দুপুরে ক্যাম্পাসের মসজিদে নামাজ পড়তে আসে অনেক শিক্ষার্থী। বিকাল না হতে হতে ক্যাম্পাসের কাঁঠালতলা, শান্ত চত্বর, শহিদ মিনার, টিএসসিসহ পুরো ক্যাম্পাস মুখরিত থাকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রদচারণায়। পুরানো খোশগল্প, আড্ডায় মেতে উঠে শিক্ষার্থীরা। বিকালে খেলার মাঠে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের একটা দলকে।
    ১১ তম ব্যাচের সমাজকর্মের শিক্ষার্থী মোঃ মহিনউদ্দিন বলেন ,বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম সৌন্দর্য হচ্ছে দলীয় আড্ডা যেখানে বন্ধু বা সিনিয়র-জুনিয়র মিলে সমাজ, রাজনীতি, ধর্ম, অর্থনীতি, শিক্ষা ও গবেষণামূলক বহুমুখী চর্চার মাধ্যমে একে অন্যকে আলোকিত করে। জবি ক্যাম্পাসে নেমে আসুক প্রাণের ছোঁয়া, হয়ে উঠুক শিক্ষা ও গবেষণার আশ্রম এবং চারদিকে ছড়িয়ে পড়ুক জবিয়ানরা।
    এই বিষয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মতামত জানতে চাইলে, জবির ১২তম ব্যাচের সাজ্জাদ হোসেন ইহসান বলেন, অনেক দিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার ফলে সবার মধ্যে একটা হতাশা তৈরী হয়েছে। তবে আজ শুক্রবার বিকাল থেকে ক্যাম্পাস ফিরছে আগের রূপে। সবার মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা কাজ করছে। আমাদের সবার প্রত্যাশা খুব দ্রুত ক্যাম্পাস হোক শিক্ষার্থীদের প্রাণের সঞ্চার।
    এই বিষয়ে আরো জানতে চাইলে ১৪ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মেহেদী বলেন, সময়ের করাঘাতে হতাশার সুরকে বিদায় দিয়ে চঞ্চল হয়ে উঠেছে আমার জবি।ফিরে পাক প্রাণ, জেগে উঠুক বিদ্যাপীঠ,সঞ্চার হোক প্রাণ শক্তি।
    ১৫ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সিফাত উল্লাহ বলেন, প্রাণ নিঃশ্বাসে আনন্দঘন অতীতের ক্যাম্পাসে ফিরে দেখা বর্তমান সময়।কৌতুহল কাটিয়ে মরণঘাতীকে উপেক্ষা করেও নতুন ভাবে উদ্দীপনায় প্রাণবন্ত হোক প্রিয় ক্যাম্পাস, আমার জবি।
    বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম সৌন্দর্য হচ্ছে দলীয় আড্ডা যেখানে বন্ধু বা সিনিয়র-জুনিয়র মিলে সমাজ, রাজনীতি, ধর্ম, অর্থনীতি, শিক্ষা ও গবেষণামূলক বহুমুখী চর্চার মাধ্যমে একে অন্যকে আলোকিত করে। জবিয়ানদের মানসিক শক্তির অন্যতম আধার হচ্ছে এই ভালোবাসার ক্যাম্পাস। আশাকরি, করোনার সংক্রমণ কাটিয়ে খুব শীঘ্রই জবি তার সন্তানদের বুকে টেনে নিবে।
    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ০৫ জুন ২০২১

    seradesh.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০ 
    advertisement

    সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : সাদেকুল ইসলাম | সম্পাদক : আবু সাঈদ

    ঢাকা অফিসঃ বাড়ি #৫ (১ম তলা) রোড #০ কল্যাণপুর, ঢাকা-১২০৭, অফিস ঢাকা রোড সান্তাহার ৫৮৯১
    ফোন : 01767 938324 (মফস্বল) 01830 359796 (সম্পাদক) | E-mail : seradeshmoff@gmail.com, news@seradesh.com

    ©- 2021 seradesh.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।

    %d bloggers like this: