• শুক্রবার ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম


    কুড়িগ্রামে ছাত্রলীগ নেতার কব্জি কর্তন: প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার-২

    নয়ন দাস,কুড়িগ্রাম | ১৫ এপ্রিল ২০২১ | ৭:০৩ অপরাহ্ণ

    কুড়িগ্রামে ছাত্রলীগ নেতার কব্জি কর্তন: প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার-২

    কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আতাউর রহমান মিন্টুর হাতের কব্জি কেটে নেওয়ার ঘটনায় দায়ের মামলার প্রধান আসামি ‘হাতকাটা’ বাঁধন ও তার অন্যতম সহযোগী রশিদ মিয়াকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঢাকার বাইপাইল এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে বুধবার (১৪ এপ্রিল) কুড়িগ্রামে নেওয়া হচ্ছে বলে জেলা পুলিশের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

     


    সূত্র জানায়, রাজারহাট থানা পুলিশের একটি দল ঢাকার বাইপাইল এলাকা থেকে মিন্টুর ওপর হামলা মামলার প্রধান আসামি মেহেদী হাসান বাঁধন ওরফে ‘হাতকাটা’ বাঁধন এবং তার অন্যতম সহযোগী রশিদ মিয়াকে গ্রেফতার করেছে।

     


    এ বিষয়ে জানতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) পবিত্র কুমারকে ফোন দিলে তিনি এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানান।

     


    মেহেদী হাসান বাঁধন জেলার সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নের শিবরাম এলাকার মুকুল মিয়ার ছেলে। তার মা মর্জিনা বেগম ওই ইউনিয়নের সংরক্ষিত (১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ড) নারী ইউপি সদস্য। আর রশিদ মিয়া একই ইউনিয়নের তালুক তালোয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। গত ১৬ মার্চ ছাত্রলীগ নেতা মিন্টুর ওপর হামলার পর থেকে এরা পলাতক ছিলেন। এলাকায় এরা ‘হাতকাটা’ বাহিনী হিসেবে পরিচিত। এর আগে এই মামলায় আল-আমিন আহমেদ শুভ নামে আরও এক আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সে কুড়িগ্রাম পৌরসভা এলাকার বকসী পাড়ার আব্দুল আজিজ দুলালের ছেলে। শুভ এজাহারভুক্ত আসামি না হলেও গ্রেফতারের পর সে নিজের সম্পৃক্ততার কথা জানিয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। বর্তমানে সে জেল হাজতে রয়েছে।

     

    কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও জেলা শহরের মজিদা আদর্শ ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আতাউর রহমান মিন্টু গত ১৬ মার্চ দুপুরে জেলার রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের পালপাড়া এলাকায় আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা কয়েকজন দুষ্কৃতকারীর হামলার শিকার হন। হামলাকারীরা কুপিয়ে তার ডান হাতের কব্জি শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং অপর হাত ও দুই পা গুরুতর জখম হয়। বর্তমানে মিন্টু ঢাকার জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে ( পঙ্গু হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

     

    এ ঘটনায় সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নের বাসিন্দা মেহেদী হাসান বাঁধনসহ ছয়জন জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে। পরে বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) মিন্টুর বাবা আলতাফ হোসেন বাদী হয়ে রাজারহাট থানায় বাঁধনসহ ১১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। আতাউর রহমান মিন্টু জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলীর আপন ভাগিনা। আর বাঁধন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমান উদ্দিন মঞ্জু গ্রুপের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে। কাঁঠালবাড়ী এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তাদের মধ্যে রাজনৈতিক বিরোধও রয়েছে।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৭:০৩ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১

    seradesh.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১ 
    advertisement

    সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : সাদেকুল ইসলাম | সম্পাদক : আবু সাঈদ

    ঢাকা অফিসঃ বাড়ি #৫ (১ম তলা) রোড #০ কল্যাণপুর, ঢাকা-১২০৭, অফিস ঢাকা রোড সান্তাহার ৫৮৯১
    ফোন : 01767 938324 (মফস্বল) 01830 359796 (সম্পাদক) | E-mail : seradeshmoff@gmail.com, news@seradesh.com

    ©- 2021 seradesh.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।

    %d bloggers like this: