• শনিবার ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম


    নওগাঁয় লকডাউন না থাকলেও নিয়ামতপুর সড়কে চেকপোষ্ট

    নওগাঁ প্র‌তি‌নি‌ধি | ১০ জুন ২০২১ | ৭:৪৬ অপরাহ্ণ

    নওগাঁয় লকডাউন না থাকলেও নিয়ামতপুর সড়কে চেকপোষ্ট

    চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়  করোনা সংক্রমন ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবার সাথে সাথে জেলার সীমান্ত ঘেঁসা নিয়ামতপুর উপজেলায় ঈদের পর থেকে নিয়ামতপুরেও করোনা সংক্রমন বেড়েছে। এ অবস্থায় স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন নিয়ামতপুর -চাঁপায়নবাবগঞ্জ যানবাহন চলাচল বন্ধ, বিভিন্ন সড়কে চেকপোষ্ট বসানো হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে উপজেলার ছাতড়া পশু হাট এবং শিবপুর হাট। এরপর জেলা প্রশাসন গত ৩ জুন থেকে ৮ জুন পর্যন্ত নওগাঁ পৌরসভা ও নিয়ামতপুর উপজেলায় সব্বার্ত্মক লকডাউন ঘোষণা করে। লেকডাউনের মেয়াদ শেষে জেলা প্রশাসন করোনা সংক্রমন রোধে ১০ জুন থেকে ১৬ জুন পর্যন্ত  নিয়ামতপুরসহ গোটা জেলায় ১৫ দফা বিধি নিষেধ জারী করেছে।

    জেলা প্রশাসনের ১৫ দফা ওই বিধি নিষেধের মধ্যে শুধুমাত্র নিয়ামতপুর উপজেলায় সকল প্রকার দুরপাল্লার ও আভ্যন্তরীণ রুটের বাস চলাচল এবং কাচাঁমালের ওনিত্য প্রয়োজণীয় দোকান ছাড়া সকল দোকানপাট হাটবাজার বন্ধ থাকবে। এ কারনে উপজেলায় পুলিশের চেকপোষ্ট রয়েছে।


    নিয়ামতপুর উপজেলা নিবার্হী অফিসার জয়া মারিয়া পেরেরা বলেন, এই উপজেলায় করোনা সংক্রমনরোধে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ দিনরাত কাজ করছে। কিন্তু সাধারণ মানুষজনের মধ্যে সচেতনতার খুবই অভাব। তাদের অধিকাংশই মাস্ক পারতে চাননা, মানতে চাননা সামাজিক দুরত্ব। তবে স্বাস্থ্য বিধি মানাতে উপজেলা প্রশাসন তৎপর রয়েছে। এ কারনে উপজেলায় পুলিশের চেকপোষ্ট ও  রয়েছে। প্রয়োজনে ভ্রাম্যমান আদালতও পরিচালিত হচ্ছে।

    স্থানীয় সমাজকর্মী ও সাংবাদিক তোফাজ্জল হোসেন বলেন, এখন আমের মৌসুম। নওগাঁর বেশির ভাগ আম বাগান ক্রয় লিজ নেন। চাঁপায়নবাবগঞ্জের ব্যবসায়ীরা। এ কারনে আম ব্যবসার জন্য চেক পোষ্ট ফাঁকি নিয়ামতপুর ও সাপাহার পোরশায় আসছেন রাজশাহী ও। চাঁপায়নবাবগঞ্জের ব্যবসায়ীরা। সাথে নিয়ে আসছেন আম নামানোর শ্রমিক। এ কারনে নিয়ামতপুর সহ সীমান্তের পোরশা সাপাহারে ও বাড়ছে করোনা সংক্রমন।


    নিয়ামতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার তোফাজ্জ্বল হেসেন জানান, উপজেলায় এ পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ হয় ১ হাজার ১শ ২৬ জনের, করোনা পজেটিভ ১শ ৮৭ জনের। রির্পোট আসেনি ৪২ জনের। করোনা আক্রান্ত হয়ে হত বছরের মার্চ মাসে মৃত্যুবরণ করেন উপজেলার হাজীনগর গ্রামের ইচাহক আলী(৭০) ও ৩০ মে মারা যান শীমন্তপুর গ্রামের নিয়ামতআলী(৭২) এই ২জন এবং উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন আরো ২জন।

    গত ৩জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত উপজেলায় ৪১৭ জনের করোনা পরীক্ষায় ৭৪ জন আক্রান্ত হয়েছে।বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১১৬ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন২১ জন।


     

    নওগাঁর ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা: মুন্জুর এ মোর্শেদ জানান, রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে সীমান্ত জেলা নওগাঁর নিয়ামতপুর  পোরশা  ও সাপাহারে। তবে আমরা সর্তক আছি। ইতোমধ্যে প্রচার প্রচারণাসহ নানা পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। আশাকরছি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের মধ্যে থাকবে বলে জানান ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা: মুন্জুর এ মোর্শেদ।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৭:৪৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১০ জুন ২০২১

    seradesh.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০ 
    advertisement

    সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : সাদেকুল ইসলাম | সম্পাদক : আবু সাঈদ

    ঢাকা অফিসঃ বাড়ি #৫ (১ম তলা) রোড #০ কল্যাণপুর, ঢাকা-১২০৭, অফিস ঢাকা রোড সান্তাহার ৫৮৯১
    ফোন : 01767 938324 (মফস্বল) 01830 359796 (সম্পাদক) | E-mail : seradeshmoff@gmail.com, news@seradesh.com

    ©- 2021 seradesh.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।

    %d bloggers like this: