• শনিবার ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম


    লকডাউনে খামার করে স্বপ্ন পূরণ

    রানা হামিদ,বদলগাছী (নওগাঁ) | ১০ জুলাই ২০২১ | ৬:৫৮ অপরাহ্ণ

    লকডাউনে খামার করে স্বপ্ন পূরণ

    প্রায় দের বছর থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোও বন্ধ। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই প্রিয় বিদ্যাপীঠ ছেড়ে বাড়িতে এসে থাকতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। অধিকাংশ শিক্ষার্থীই শুয়ে-বসে, ফেসবুকিং করে, মোবাইল গেম অথবা বই পড়ে সময় কাটাচ্ছে। লকডাউনের এই অবসর সময়টাকে হেলায় নষ্ট না করে স্বপ্নের গরুর খামার গড়ে তুলেছেন নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জিহান।

    নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের আরজি পাঁচঘড়িয়া গ্রামের সাহাবুল আলমের ছেলে হাসিবুল ইসলাম জিহান। সে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের নবম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী। পড়াশুনা শেষে উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন অনেক আগে থেকেই। কিন্তু লকডাউনের কারণে পড়াশুনা শেষ করার আগেই সেই স্বপ্নের সিঁড়িতে আরোহণ করেছেন জিহান।


    করোনা ভাইরাসের কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যায়। বাড়িতে চলে আসেন জিহান। গ্রামের বাড়িতে সবসময় দু-একটা গরু থাকেই। এই গরুগুলো লালন পালন করতে করতেই বড় একটি খামার করার সাধ জাগে তার। যে কথা সেই কাজ। বাবা সাহাবুল আলমের সাথে পরামর্শ করে শুরু করেন খামারের কাজ। বড় আকারের ২০টি গরু রাখার মতো একটি গোয়াল ঘর তৈরি করেন তিনি। নাম দেন জিহান ডেইরী ফার্ম।


    জিহান ডেইরী ফার্মে বর্তমানে ১৮ টি গরু আছে। এর মধ্যে রয়েছে গাভী, দেশি ষাঁড় ও ইন্ডিয়ান বলদ। তিনটি গাভী থেকে প্রতিদিন ৭০ থেকে ৮০ লিটার দুধ হয়। কুরবানীর ইদকে সামনে রেখে ছয় মাস ও এক বছর আগে কিনেছিলেন বলদ ও ষাঁড়গুলো। এই ইদে বিক্রয় উপযোগী গরু রয়েছে ১৫ টি। গরুগুলো কিনতে ও লালনপালন করতে খরচ হয়েছে আনুমানিক ৩০ লাখ টাকা। বিক্রি করার ইচ্ছে আছে ৪০ লাখ টাকায়। কিন্তু কঠোর লকডাউনের কারণে গরুগুলো ভালো দাম দিয়ে বিক্রয় করা নিয়ে আছেন ভীষণ শঙ্কায়।

    নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাসিবুল ইসলাম জিহান বলেন, ছোট বেলা থেকেই আমার গরু পালনের শখ ছিল। পড়াশুনা শেষ করেই শুরু করতাম। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ভাবলাম বসে না থেকে এখন থেকেই শুরু করি। বাবার সাথে পরামর্শ করে শুরু করেছি। বর্তমানে ১৮ টি গরু আছে।


    জিহান আরো বলেন, এই প্রজেক্টকে আরো বড় করার ইচ্ছে আছে। আগামী বছর ৫০ থেকে ৬০ টি গরুর প্রজেক্ট করবো। এখন আমার এখানে দুইজন লোক কাজ করে। খামার বড় হলে আমার স্বপ্ন পূরণ হবে পাশাপাশি অনেক লোকের কর্মসংস্থানও হবে।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৬:৫৮ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১০ জুলাই ২০২১

    seradesh.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

    সম্পাদক : মোঃ আতোয়ার হোসেন | বার্তা সম্পাদক : আবু সাঈদ

    ঢাকা অফিসঃ বাড়ি #৫ (১ম তলা) রোড #০ কল্যাণপুর, ঢাকা-১২০৭, অফিস ঢাকা রোড সান্তাহার ৫৮৯১
    ফোন : 01767 938324 (মফস্বল) 01830 359796 (সম্পাদক) | E-mail : seradeshmoff@gmail.com, news@seradesh.com

    ©- 2021 seradesh.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।

    %d bloggers like this: